স্বার্থপরতার রাজনীতির অবসান চাই ।। প্রিতম মল্লিক

প্রিতম মল্লিক:

রাজনীতি সমাজের মানুষের সুযোগ সুবিধার জন্য তাদের সকল প্রাপ্য অধিকার পাওয়ার জন্য প্রচলিত সমাজ ব্যাবস্থার পরিবর্তন করে রাষ্ট্র যে নীতি প্রনয়ন করে। কিন্তু বর্তমান রাজনীতির কথা চিন্তা করলে রাজনীতি এখন সমাজে শাসক গোষ্ঠি সমাজে বিত্তবান হওয়ার জন্য যে নীতি প্রনয়ন করে তাই রাজনীতি । প্রচলিত রাজনিতী আসলেই কি সমাজে শোষিত মানুষের কথা চিন্তা করে ? প্রচলিত রাজনীতি কখনো শোষিত মানুষের কথা চিন্তা করে না।চিন্তা করে কিভাবে বিত্তবান আরো বিত্তবান হবে।আর কিভাবে সাম্রাজ্যবাদী তার নতুন সাম্রাজ্য গড়ে তুলবে।সাম্রাজ্য চাইলে গড়ে তোলা যায় না। সাম্রাজ্য গড়ে তুলতে সাম্রাজ্যবাদীদের মানুষের ব্যাবহার করতে হয়।মেহনতী মানুষের বুকের উপর গড়ে উঠে সাম্রাজ্য।। বর্তমান রাজনীতি দু প্রকার শাসক শ্রেণীর রাজনীতি আর শোষিত শ্রেণীর রাজনীতি। একদল যারা রাজনীতি করে আর একদল যারা রাজনীতিতে ব্যাবহার হয়।

ধনিক শ্রেণীর রাজনীতি আর গরীব শ্রেণীর রাজনীতি সম্পূর্ণ বিপরীত। আগে গ্রামের জমিদার গরীব কৃষক দ্বারা জমি চাষ করাতো আর কৃষক অনেক কষ্টে ফসল ফলানোর পরে ও দেখা যেতো যে দু মুঠো খেতেই পায় না।কিন্তু জমিদার কোন প্রকার কষ্ট ছাডাই পায়ের উপর পা তুলে খায়।। বর্তমানে পৃথিবী অনেক বদলেছে ,মানুষ অনেক দূর এগিয়েছ্, কিন্তু তবুও শোষন কমে যায় নি বরং পৃথিবী পরিবর্তনের সাথে শোষনের ধরনটা বদলেছে। এতো উন্নয়ন দিয়ে কি হলো ।আমরা আগের মতোই রয়ে গেলাম আগের মতো‌ বর্তমানে ঠিক তেমনই ভাবে গরীব আরো গরীব হচ্ছে আর ধনীরা বরাবরের মত ধনি হচ্ছে। আহা উন্নয়ন যদি খাওয়া যেত। তাইলে পৃথিবীর একজন মানুষ ও না খেয়ে থাকতো না পৃথিবীর সকল মানুষ ক্ষুধা জয়ের সংগ্রামের এক এক জন যোদ্ধা ।সে যুদ্ধে বিত্তবানরা হয় রাজা বা মন্ত্রি আর সাধারন মানুষরা হয় নিরিহ সৈনিক। রাজনীতি শুধু মানুষের মধ্যে থাকে না। দেশে দেশে ও হয়ে থাকে। বড় দেশ গুলো চায় যাতে ছোট দেশ গুলো যাতে নিজেদের মধ্যে যুদ্ধ বাধিয়ে রাখে ।

যাতে করে বড় দেশ গুলো যাতে ছোট দেশে নিজেদের সাম্রাজ্য স্থাপন করতে পারে ।দেশ গুলোতে ব্যাবসা করতে পারে। এই ব্যাবসার রাজনীতি বন্ধ করতে হবে। এই ধরণের স্বার্থপরতার রাজনীতি বন্ধ করতে হবে। আর এভাবেই যদি চলতে থাকে তাহলে দেশ পুরোপুরি ভাবে চলে যাবে সাম্রাজ্যবাদীদের হাতে।মানুষ হারাবে তার ন্যায্য অধিকার।রাষ্ট্র ক্ষমতা হারাবে জনগণ। আমরা শান্তি চাই,আমরা চাই পৃথিবীতে মানুষ আর শোষিত না হোক,সকল কৃষক তার জমির মালিক হোক। আমরা রাজনৈতিক স্বাধীনতা চাই।আমরা সাম্রাজ্যবাদের অবসান চাই। এই সমস্যার সমাধান এমনিতে আসবে না এই সমস্যা থেকে মানুষকে বের হয়ে আসতে চাইলে মেহনতি মানুষকে রাজপথে নামতে হবে ।এই সব স্বার্থপর রাজনীতি আর সাম্রাজ্যবাদের বিরূদ্ধে মানুষকে রুখে দাড়াতে হবে।মেহনতি মানুষকে শ্রেণী ব্যাবধান বুঝতে হবে।রাষ্ট্র ক্ষমতা হতে হবে জনগণের। তাইলে দেশ হবে সুন্দর ও সমৃদ্ধ।

লেখক: ছাত্র, কক্সবাজার মডেল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ।

শেয়ার করুন

ব্লগার আমার কলম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।