সুত্রপাত / অন্যান্য / পাঁচটি কবিতা ।। হিমাংশু দেব বর্মণ

পাঁচটি কবিতা ।। হিমাংশু দেব বর্মণ

  • ধূসর স্বপ্ন

তোমাদের চিলেকোঠাগুলো খুব উপরে
অনেকটা ধাপের সিঁড়ি পেরিয়ে
কতকগুলো তলাও আছে তার মাঝে।

আমাদের জীবনের অংক বড় কঠিন
তোমাদের হিসেব কাঁটায় কাঁটায়
এখানে স্বপ্নরা আগুন নিয়ে খেলে।

মৃত্যুও ভয়ে ছোঁবে না কোনোদিন
বাসনা পুড়ে পুড়ে বয়ে দেয় ধ্রুবস্রোত
তারাদের গায়েও ফোঁস্কা পড়ে যায় দেখি।

আদি আর অনন্ত বলে কিছু নেই
প্রতিনিয়ত বদলে যায়, বদলাতে থাকে
সময়ের অবয়ব, মিসিরের ভাঙা গোয়াল ঘরও।

  • আগুনের তুলি

কেবলই আগুনের ছবি আঁকত যে চিত্রকর
রঙ দিয়ে
তুলি দিয়ে।

একদিন সে নিজের হাতে দেখল আগুনের তুলি
আর ছবি নয়
জীবন্ত সে আগুন!

ওই আগুনের আয়নায় দেখল তার নিজের মুখ
বিভৎস্য মুখ
ভীষণ কদাকার!

ছবি আঁকে- মানুষ দলে দলে ছুটে আসে জল নিয়ে
ঢেলে দেয় আগুন
জ্বলে ওঠে আগুন।

এভাবে পুড়ে যায় সব আগুন, শিল্পীর তুলি
আগুন-
আগুনের তুলি।

  • ছুঁয়ে দেখো

ইচ্ছেমতো বাতাস খেলে যায়
তোমার এলোচুল শাড়ীর আঁচল নিয়ে
কখনো শুনিনি-বলেছ খেলো না।
আর আমি একটু ছুঁতে গেলেই-
দুমড়ে মুচড়ে কুকড়ে যাও
এ-ই না!
বাপরে কত কারিশমা
সুযোগ বুঝে আকাশও মাটির ঘ্রাণ চেখে নেয়
ঘাসফুলের গন্ধ জানে ঘাসফড়িং-এর ডানা।
এক যন্ত্রণাযুগ অপেক্ষায় থেকেও
ওই মুখে আজও শুনতে পাইনি
একটু ছুঁয়ে দেখো।

  • একটি নিখোঁজ সংবাদ

করপোরেট ঘুমে আচ্ছন্ন কাল থেকে
হারিয়ে গেছো তুমি-
উজ্জ্বল কালো রঙের ফর্সা মনের মেয়েটি।

শহরের অলি-গলি, গৈ-গেরামের মেঠোপথ
কোথাও খুঁজে পাইনি তোমাকে
তোমার তো জানা তুমি ছাড়া আমি একা।

আজ বড় নিঃস্ব সময়ে দু’হাত তুলে ডাকি
তুমি যেখানেই খুঁজে পাও
তোমাকে আমার কাছে পৌঁছে দাও।

যোগাযোগ: ফিরে দেখা অতীত সময়
মন-নম্বর তুমি তো জানোই
ফিরিয়ে দাও তোমাকে আমার সম্মোহনী ভাবনায়।

  • সেই কবিতা

অশ্লীলতার পাড় ভেঙে উপচে পড়া নদীর
স্রোতবাহী দু’কুল ভাঙা জোয়ার
মোহনায় ঘোলাটে হয় তোমার
জোড়াবৃন্তের মায়াময় শরীর।

তার সবটুকুই আমার জন্য বয়ে নিয়ে বেড়ায়
তোমার যৌবনের ঝড় জলোচ্ছাস
অতৃপ্ত কামনার ঝলসানো মুখ দেখি-
তোমার সুপ্ত আগ্নেয়গিরির জ্বালামুখ।

একবার নয় বারবার খুঁড়ে দেখি তোমার নগ্ন শরীর
ওই আদিমতা থেকেই উঠে আসে
আমার আধুনিকায়নের পুষ্ট বীজ
হৃদয়ের মলাটেই লেখা হয় সেই কবিতা।

লেখক: কবি ও প্রাবন্ধিক।

শেয়ার করুন
  • 80
    Shares
error: Content is protected !!