Home / অনন্যা / একটি রোবট এবং আমাদের বিকৃত মানসিকতা ।। শুভ্রা গোস্বামী

একটি রোবট এবং আমাদের বিকৃত মানসিকতা ।। শুভ্রা গোস্বামী

শুভ্রা গোস্বামী:

একটি মেয়ে শিশুকে জন্মের পর থেকেই শেখানো হয় নিজেকে ঢেকে রাখবার নানান উপায়।যত বেশি কাপড় তার শরীরে দেয়া হয় তত বেশি সে তার মনের উপর আস্তরন ফেলে।এভাবেই মনোজগতকে ঢেকে ফেলে এক অদৃশ্য পর্দা দ্বারা। এ জন্য আমরা আসলে কাকে দায়ী করব? যে দেশে একটি ৬ মাসের শিশু ধর্ষিত হয় সেই দেশে আমরা পর্দা কোথায় লাগাব? শরীরে নাকি মনোজগতে? আমাদের মাথার ভেতর ঢুকে গেছে একজন মেয়ে শিশু কিংবা নারী মানেই তার শরীরে নানা ধরনের আচ্ছাদন। তার স্তন, নিতম্ব কে ঢেকে রাখতে হবে কয়েকপ্রস্থ কাপড় দ্বারা যাতে সেটা ভেদ করে কেউ না পৌছুতে পারে কাংখিত লক্ষ্যে। অথচ যার লক্ষ্যে পৌছুনো দরকার সে এমনিতেই পৌছে যায়। হাজার হাজার মিটার কাপড় তার লক্ষ্যকে নিশ্চল করতে পারে না। এ দেশে জন্মানোর পর প্রতিটি মেয়ে শিশুকে যদি কাপড় না দিয়ে লোহার তৈরি আচ্ছাদন দেয়া যেত তবে হয়ত কিছুটা নিস্তার পাওয়া যেত।অথবা তার শরীরের সব ছিদ্র গুলোকে বন্ধ করে দেয়া যেত তাহলে হয়ত ওদের লক্ষ্যবস্তুর কিছুটা পরিবর্তন হত। ওরা নারীর পরিবর্তে বেছে নিত কুকুর, ঘোড়া কিংবা যে কোন ছিদ্রযুক্ত প্রানীকে।

সম্প্রতি ঢাকায় একটি রোবট ক্যাফে চালু হয়েছে যেখানে মেয়ে রোবটটির গায়ে দিয়ে দেয়া হয়েছে আচ্ছাদন। তার মানে এই যন্ত্রগুলো ও নিরাপদ নয় আমাদের দেশে। অথবা শুধুমাত্র মেয়েদের গায়ে ওড়না থাকতে হয় বা হবে সেজন্য রোবটটার গায়ে দেয়া হয়েছে। আমরা এতটাই নীচে নেমে গেছি যে নারীকে আমরা অতিরিক্ত কাপড় ছাড়া কল্পনাই করতে পারি না।স্কুল ড্রেসে মেয়েদের জন্য আলাদা ভাবে থাকে স্কার্ফ বা ওড়না যা একটি মেয়ে শিশুকে মেয়ে ভাবতে সাহায্য করে। কিছুদিন আগেই পাঠ্যপুস্তকে দেয়া হয়েছিল ও তে ওড়না চাই। একজন ক্লাস ওয়ান এর শিশুকে আমরা শেখাচ্ছি যে ওড়না অতি দরকারী জিনিস। এখন রোবট ক্যাফেতে রোবট এর গায়ে ওড়না দিয়ে আবার শিশুদের মনে করিয়ে দিচ্ছি ওড়না খুব দরকারী। কারন এই ক্যাফেতে শিশুরাই বেশি যাচ্ছে রোবট দেখবার জন্য। অবচেতন ভবেই তাদের মনোজগত কে গ্রাস করছে এই ওড়নাধারী রোবট। কিছুদিন পর হয়ত ভাস্কর্য গুলোকেও ওড়না পড়ানো হবে। এই ওড়না আমাদের বিকৃত মানসিকতার এক সর্বোকৃষ্ট উদাহরন। আমরা জাতী হিসেবে এতটাই বিকৃত যে আমরা রোবটকেও ওড়ণা পড়িয়ে রাখি।

লেখক: সাধারন সম্পাদক, উদীচী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

Comments

comments

Check Also

তিন তালাক ও কিছু কথা ।। ফারজানা কাজী

ফারজানা কাজী: ভারতের সর্বোচ্চ আদালত মুসলমানদের তিন তালাক প্রথাকে অসাংবিধানিক বলে ঘোষণা করেছে এই বছরের …