Category: ধর্ম ও দর্শন

ধর্মে আমাদের দ্বৈত আচরণ, ভিন্ন ভিন্ন পরিবেশ

মোর্শেদ আলম সাকিল : মৃত ব্যক্তির বাড়িতে প্রবেশ করলেই চারপাশের পরিবেশ বলে দেয় যে, এই বাড়ির কেহ মৃত্যুবরণ করেছে। বাড়ির পুরুষ লোকগুলো মাথায় টুপি পরিধান করে। মহিলারা খুব সুন্দর মাথায় ঘোমটা টেনে দেয়। যেন নব এক কণ্যা বধু। এমনকি যেসব মেয়েরা সবসময় জিন্সের পেন্ট,শার্ট পরিধান করে ওড়না তো গলায় থাকেই নাহ,তারাও সেদিন শালীন পোশাক পরিধান […]

গৌতম বুদ্ধ ভগবান বা অবতার নয়

জিটু চৌধুরী : গৌতম বুদ্ধের আর্ভিবাব হয়েছিল পরিবেশ ও প্রতিকূলতাকে জয় করে । সিদ্ধার্থের মাধ্যমে গৌতম বুদ্ধের জন্ম । পৃথিবীতে জ্ঞানের স্বাদ দেওয়া গৌতম বুদ্ধ হয়ে ওঠেন মানুষের কাছে ভগবান ও অবতার । কি ভাবে একজন জ্ঞানী ব্যক্তিকে ভগবান বা অবতার রুপে মানুষেরা মেনে নিয়েছে, তাহা আমার জ্ঞানের বাহিরে বিষয় । দশ অবতার বইয়ে লেখা […]

দর্শনে মার্কসবাদ একটি বিপ্লব

মোঃ লুৎফর রহমান : মহামতি মার্কস ও এঙ্গেলস সৃষ্ট দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদ হচ্ছে দর্শনের ইতিহাসে এক বুনিয়াদি বিপ্লব । এটি বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায়ও একটি বিপ্লব । আমরা যদি ইতিপূর্বে সৃষ্ট দর্শনের সাথে মার্কসবাদকে মেলাই তা হলে তফাৎ দেখতে পাবো । দেখতে পাবো মার্কস ও এঙ্গেলস সৃষ্ট নতুন উপাদানগুলো । (১) মার্কসীয় তত্ত্বের সামাজিক দিক : মার্কস-এঙ্গেলস সৃষ্ট […]

তত্ত্বগত পূর্বশর্তসমূহ

মোঃ লুৎফর রহমান : মার্কসীয় দর্শনের আত্মপ্রকাশ নির্ভর করেছিলো সে যুগে দর্শন যতটুকু এগিয়েছিলো তার উপর । ১৯শ শতাব্দীর প্রথমার্ধে দ্বান্দ্বিক ও ঐতিহাসিক বস্তুবাদের আত্মপ্রকাশের পূর্বশর্তগুলো গড়ে ওঠেছিলো । তখনকার ক্লাসিকাল জার্মান দর্শনের প্রগতিশীল ভাবধারণা এ ক্ষেত্রে বিশেষভাবে অবদান রেখেছিলো । সে সময়ের হেগেল ও ফয়েরবাখের দর্শন ছিলো মার্কসবাদের সরাসরি তত্ত্বগত উৎস । মার্কস ও […]

প্রকৃতিক বিজ্ঞান বিষয়ক পূর্বশর্তসমূহ

মোঃ লুৎফর রহমান : ১৯শ শতাব্দীর শুরুর দিকে পৃথিবীতে বিজ্ঞান এমন একটা পর্যায়ে উন্নীত হয়েছিলো যা দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদের আত্মপ্রকাশে সহায়ক হয়েছিলো । বলবিদ্যা, জ্যোতির্বিদ্যা, রসায়নবিদ্যা, জীববিদ্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক বিজ্ঞানের বিকাশ পৃথিবীর বস্তুগত ঐক্যকে দেখিয়েছিলো । আরো দেখিয়েছিলো প্রাকৃতিক প্রক্রিয়াগুলোর দ্বান্দ্বিক চরিত্রকে । ঐ সময়ের তিনটা বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদ প্রতিষ্ঠায় বিরাট অবদান রেখেছিলো । […]

আমার কলম © ২০১৭, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। লেখা পাঠানোর ঠিকানা: editor@amarkolom.com