সেই দিনের কথা

//সেই দিনের কথা

সেই দিনের কথা

মল্লিকা :- আর না হিতাংশু এইবার চলে এসো।

হিতাংশু :- দাঁড়াও এত তাড়া দিচ্ছ যে একটু পরেই আসছি।

মল্লিকা :- এইবার তো ঠান্ডা লেগে যাবে, সেই কখন থেকেই বৃষ্টিতে অবিরাম ভিজে চলেছো। তোমার সেই ছেলে মানুষীটা এখনো গেলো না।

হিতাংশু :- যাবে ও না, আজ যদি আমার জ্বর বা ঠান্ডা লাগে তাহলে তার জন্য ও আমি দ্বায়ী না, দ্বায়ী তুমি।

মল্লিকা :- ইস! এমন ভাবে বলছো যেনো আমি তোমাকে বলেছি বৃষ্টিতে গিয়ে ভিজতে।

হিতাংশু :- হ্যাঁ, তুমিই বলেছো! মনে আছে সেই দিনের কথা? যে দিন তুমি স্কুল পালিয়ে আর আমি কলেজ পালিয়ে দুজন দেখা করেছিলাম, শৈবাল বীচর ঝাউ বনে। বসে ছিলাম দুজন পাশাপাশি, হঠাৎ যখন বৃষ্টি শুরু হয়েছিল আমি বৃষ্টিকে দ্বিক্ষার দিয়েছিলাম বলে তুমি জিজ্ঞাস করেছিলে আমি বৃষ্টি পছন্দ করি কি না? বলেছিলাম আমি বৃষ্টিকে সব থেকে বেশি অপছন্দ করি, জবাবে তুমি বলেছিলে, তোমার হৃদয়টা পাথরে গড়া, যারা বষ্টি পছন্দ করে না তারা ভালোবাসতে জানে না। তারা হৃদয় হিন। তোমার সেই কথায় আমার হৃদয় নাড়া দিয়েছিল। আর সেই দিন থেকেই আমি বৃষ্টিকে ভালোবাসতে শিখি শুধু এইটাই প্রমাণ করার জন্য যে আমার ও হৃদয় বলে বস্তুটা আছে। আর সেই তুমি এখন বলছো আমি বৃষ্টি না ভিজতে?

মল্লিকা :- তোমার এখনো মনে আছে সেই দিনের কথা?

হিতাংশু :- হ্যাঁ! থাকবে না কেন?সেই দিনের কথা কি ভুলা যায়? তোমার গালে চুমু খাইনি বলে গালটা কুমড়ো পটাস এর মত ফুলিয়ে বসে ছিল। আর আমার এক ঘন্টা সময় লেগেছিল তোমার গালে একটা চুমু খাওয়ার সাহস যোগাতে।

মল্লিকা :- হাহাহা, জানো আমি তখন অধির আগ্রহে বসে ছিলাম কখন তুমি আমার গালে চুমু খাবে? আর যখন চুমু খাবে তখন অনুভূতিটা কি রকম হবে? কারণ তুমিই ছিলে আমার প্রথম পুরুষ যে কি না আমার গালে ঠোটের স্পর্শ করবে। লজ্জা আর আনন্দে আমি চোখ বন্ধ করে ছিলাম।

হিতাংশু :- হুমম! সেই দিনের পর থেকেই স্বর্থ দিয়েছিলে আমাদের যতবার দেখা হবে, তোমায় যেন একটি বার হলেও চুমু খায়।

মল্লিকা :- খুব মনে পড়ে সেই সব দিনের কথা। চলো না যায় কোন একদিন সেই শৈবাল বীচ, সেই নীল রং এর ছাতা টাঙ্গানো বেঞ্জটিতে বসে,তোমার বুকে মাথা রেখে হাজারটা স্বপ্ন বুনবো দুজন মিলে আগে যেমনটি করতাম।

হিতাংশু :-যাব তবে আগামী শুক্রবারে, কারণ আমরা শুক্রবারে বারেই বেশি সময় কাটাতাম সেইখানে। আমি আবার সেই অনুভূতি গুলো অনুভব করতে চাই, যে অনুভূতি গুলো আমাদের জীবনে চলার পথে সৃতি হয়ে হয়ে আছে।

 

শেয়ার করুন
  • 10
    Shares
By | ২০১৮-০৬-১৭T১৩:৩৭:১১+০০:০০ জুন ৫, ২০১৮|কবিতা|০ Comments

Leave A Comment