সুত্রপাত / গবেষণা / কাম এবং ভাব একে অন্যের পরিপূরক

কাম এবং ভাব একে অন্যের পরিপূরক

ইমরান হোসেন মুন্না:

আবেগ আপ্লুত হওয়ার মতো কিছু নেই; এটাই ধ্রুব সত্য। ভেবে দেখুন তো, যে মেয়েটাকে আপনি বিছানায় নিয়ে পায়জামা খুলছেন  সে মেয়েটাকে এমনিতে বিছানায় নেয়া দূরের কথা; মুখে বলতে পারতেন কিনা? পারতেন না। কিন্তু এখন কেন পারছেন ? কারন তাকে ‘ভালোবাসেন’ তার কাছে আকুল আবেদন দাবী করেছেন যখন মেয়েটিকে আপনি নির্জন জায়গায় নিয়ে যেতে চান; দুজনে এক সাথে একই বিছানার উপর কিছু সময়ের জন্য একে অন্যের মধ্যে নিজেদের  বিলিয়ে দিতে চান বলে মেয়েটিকে
জানান; তখন হয়ত প্রথমে মেয়েটা বাঁধা দিবে; নিষেধ করবে !

কিন্তু খানিকক্ষন পরে মেয়েটাও আপনার কথার তালে সম্মতি দিয়ে আপনার সাথে অন্তঃরঙ্গে মেতে উঠবে! কেন তা করবে ? কারন আপনাকে ভালোবাসে তাই! সময় অতিক্রম করেছেন তাই লম্বা সময়। ‘ভালোবাসেন’ এটা দাবী করেন বলেই দুজনে সেক্স নামক অশ্লিলতায় মেতে উঠতে পারছেন! যদি দুজনের মধ্যকার সম্পর্কে ‘ভালোবাসা’ নামক অনুভুতিটা না থাকত তবে কি একে অন্যের সাথে  কামলীলায় অন্তঃরঙ্গে মেতে উঠতে পারতেন ? কখনো না।

ভালোবাসাটাকে আজকাল সেক্সের পরিপূরক করে তুলেছেন আপনারা, আমরা। সবাই মিলেই ভালোবাসার দ্বিতীয় রূপ হিসেবে ‘সেক্স’ ভূষিত করেছি। ভালোবাসি বলে সেক্স করতে হবে; খোলামেলা শরীরটাকে দেখাতে হবে; মেসেঞ্জারে সেক্স চ্যাট করতে হবে ভিডিও কলে স্তন দেখাতে হবে যে গুলো দেখে আপনি মাষ্টারভেশন করবেন দাঁত কেলিয়ে হাসবেন। এমন কোন বাধ্যকতা কি ভালোবাসার মধ্যে পড়ে? ভালোবাসাটাকে এখনকার সময়ে ‘ভালো বাসা’ খোঁজার প্রকাশ মাত্র লিটনের ফ্লাটে খোঁজার ব্যস্ততা
সমন্বয়ে রূপান্তরিত করেছি আমরাই। কিছুকিছু ভালোবাসা নামক সম্পর্কের কিছুদিন পরই ‘ভালো বাসা’ খোঁজার তাগিদে লেগে পড়ি। সুযোগ পেয়ে গেলেই সেক্স নামক অধ্যায়ের সাথে দুজনের পরিচয় হয়ে যাই! মেয়েটার সতিত্ব নষ্ট করার পর ছেলেটা যখন মেয়েটাকে ছেড়ে চলে যায়; তখন মেয়েটা ঠুঁকরে ঠুঁকরে কেঁদে কেঁদে নিজের মনকে বলে ‘সে তো ভালোবাসত-আমিও ভালোবাসি বলেই তো নিজেকে তার কাছে সপে দিয়েছি।

এখন কাম এবং ভাব একে অন্যের পরিপূরক নয় কি!!

Comments

comments