একটি কলম

আর্য সারথী:

একটি কলম। সুন্দর সুগঠিত, খাপওয়ালা কলম। কেনা হয়েছে ৫ টাকা দিয়ে। একটি টেবিলের উপর রাখা এই কলম দ্বারা যদি লেখা হয় অত্যাচারী- ফ্যাসিবাদী শাসকের বিরুদ্ধে কোনো কথা, কোনো বিপ্লবী গান, কোনো প্রবন্ধ কিংবা কোনো কবিতা তবে এটাকি নিছক ৫ টাকা দামের সাধারণ কলমই থাকবে ? যদি সে কলম দিয়ে লেখা হয় কোনো সুন্দর, শিল্পমণ্ডিত পবিত্র প্রণয়পত্রিকা, তবে এর মূল্য কি নিছক ৫ টাকা ? এই কলম কি এসব কর্ম দ্বারা আলাদা মাত্রায় পৌঁছে গেল না ? এই কলম কি শাসকের বিরুদ্ধে জনতার তরবারি হয়ে উঠলনা ? কিংবা প্রিয়তমার প্রতি মনে যে ভাবের উদয় হয় তা কাগজের উপর স্পষ্টকরে লিখে রাখল না ? এই কলম সবার অন্তরালে মহাকালের এক গুরু দায়িত্ব সম্পন্ন করল; তখন আর এটা সামান্য কলম নয় বলেই আমি মনে করি।

কারণ তার প্রত্যেকটা দাগ শুধু যে কাগজের উপর লাগে তা নয়, দাগ লাগে মহাকালের বুকে। কললমটি মহাকালের বুকে তার চিহ্ন এঁকে দেয়। সে কাগজ আর হয়ত নাও থাকতে পারে, কাগজ ছিড়ে যেতে পারে, হারিয়ে যেতে পারে,পুড়ে যেতে পারে,অতর্কে চলে যেতে পারে ডাস্টবিনে। কিন্তু কলমটি তার সৃষ্টিকে হারায়নি। সে তার কালি খরচ করে, নিজেকে নিঃশেষ করে, নিজেকে উজাড় করে কেবলতো কাগজে  নিজেকে উপস্থাপন করেনি! সেতো লিখেছে মহাকালের বুকে। কলম মহাকালের বুকে প্রতিনিয়ত যা লিখছে আমরা কাগজে তার চিত্র দেখি মাত্র। কাগজ আমাদের কাছে মহাকালের বুকে থাকা লেখাকে সামনে আনে। কাগজের যদি কিছু হয় তাহলে কলমেরতো কিছুনা, সে তার কাজ সম্পন্ন করেছে। সমস্যাটা কেবল আমাদের। কলমটি নিজেকে উজাড় করতে করতে শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু তার কাজ রয়ে যাবে। ফলে আপেক্ষিকভাবে তার শেষ হলেও সত্যই কি তার সমাপ্তি ঘটল ? নাহ্ সে রয়ে গেল। খালি আমরা হয়ত দেখবনা।

Comments

comments